শিরোনাম: 
●   প্রখ্যাত মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির ৭ম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি ●   বসন্তের আগমন মানেই তরুণ হৃদয়ে নতুন প্রাণের সঞ্চার আর তারুণ্যের সাহসী উচ্ছ্বাস ●   উনিশ শতকের নব জাগরণের শ্রেষ্ঠ প্রতিভা, বাঙালির প্রমিথিউস মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৫তম জন্মবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা ●   আজ শুক্রবার, সপ্তাহের সকল দিনের শ্রেষ্ঠ দিন জুম্মাবার সবাইকে জুম্মা মোবারক। ●   ইংরেজ রাজনীতিবিদ ও লেখক উইনস্টন চার্চিলের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি ●   সাহিত্যরত্ন মুনশী আশরাফ হোসেনের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি ●   ২৪ জানুয়ারি, ‘৬৯ এর গণ-অভ্যুত্থান দিবসঃ ঐতিহাসিক এই দিনটিকে স্মরণ করছি গভীর শ্রদ্ধায় ●   বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের খ্যাতিমান অভিনেতা অমল বোসের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি ●   উনিশ শতকে বাংলা সাহিত্যের উল্লেখযোগ্য কবি নবীনচন্দ্র সেন এর ১১০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি ●   খ্যাতিমান স্পেনীয় পরাবাস্তববাদী চিত্রকর সালভাদর দালির ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
ঢাকা, সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ৬ ফাল্গুন ১৪২৫
NEWS CHANNEL
প্রচ্ছদ » ফটো গ্যালারী » মেয়েদের নিরাপত্তা কোথায়?
রবিবার ● ৩ এপ্রিল ২০১৬, ০৬:০৪ মিনিট
Email this News Print Friendly Version

মেয়েদের নিরাপত্তা কোথায়?

 ---

ঢাকা, ৩ এপ্রিল ২০১৬, রবিবারঃ কী অভিধায় অভিহিত করা যায়, কী সংজ্ঞায় সংজ্ঞায়িত করা যায় তাদের জানা নেই। এরকম বর্বরোচিত ঘটনার সম্মুখীন বারে বারে কেন নারীদের হতে হচ্ছে? কিন্তু কেন হবে এরকম? আর কত নারী এভাবে প্রতিদিন লাঞ্ছিত আর অপমানিত হবে? আমাদের দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নারী, বিরোধীদলীয় নেত্রী নারী, আরো আছে নারী সাংসদ, নারী স্পিকার। ক্ষমতার উচ্চপর্যায়ে নারীদের অবস্থান হওয়া সত্ত্বেও কেন নারীদের অবস্থান, চলাচল নিরাপদ হতে পারছে না? অথচ তনুকে নিয়ে যে ঘটনাটি ঘটল তা ক্যান্টনমেন্টের মতো নিরাপদ একটি জায়গায়। যেটাকে আমরা নিরাপত্তার বলয় মনে করি। যার জন্য তনুর বাবা-মা ও নিশ্চিন্ত ছিলেন নিরাপত্তার ব্যাপারে। বাইরে হাজারো অঘটন ঘটতেই পারে কিন্তু এরকম একটি জায়গায় যে তনুর জীবন নিরাপদ নয় তা কেউ ঘুণাক্ষরেও বুঝতে পারেনি। একজন নারী নিরাপত্তাহীনতায় লাঞ্ছিত হওয়া মানে বাংলার সব নারীর নিরাপত্তাকে প্রশ্নবিদ্ধ করা? আমাদের সংষ্কৃতি আর ঐতিহ্য কি তবে হারিয়ে যাবে এসব দুর্বৃত্তদের দুর্বৃত্তায়নে? আর কতদিন সবাই চুপ করে থাকবে? কেন এর যথাযথ ব্যবস্থা গৃহীত হচ্ছে না?
কে এই তনু? পুরো নাম সোহাগী জাহান তনু। মাত্র ২০ বছর বয়স। তনুর গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মুরাদনগরের মির্জাপুরে। নিহত তনু কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের সাধারণ ইতিহাসের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। সোহাগী জাহান তনু কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের কর্মী ছিল। তার বাবা ইয়ার হোসেন কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের অফিস সহায়ক পদে কর্মরত। কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় একটি কলোনিতে পরিবারের সঙ্গে থাকত সোহাগী জাহান তনু (২০)। রোববার বিকাল ৩টায় সে বাড়ির কাছেই ১২ ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়ন কোয়ার্টারে সার্জেন্ট জাহিদের বাসায় প্রথম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে প্রাইভেট পড়াতে যায়। সেই যাওয়াই শেষ যাওয়া হলো তনুর। আর ফিরে আসেনি মা-বাবার কোলে। ডিবি পুলিশ, এফআইয়ের লোকজন যখন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এলো তখন তার বাবার বর্ণনা ছিল এমন… মেয়ে অলিপুরে যায় প্রাইভেট পড়াতে… ক্যান্টনমেন্টের মতো নিরাপদ জায়গায় কোনো অন্যায় কিংবা ভয়-ভীতির চিন্তা মাথায় আসে না বলেই নিশ্চিন্তে মেয়েকে প্রাইভেট পড়াতে যেতে দিই। অন্যান্য দিন মেয়ে রাত ৮টায় বাসায় চলে আসে…কিন্তু ওইদিন ৯টায়ও তার খবর না পেয়ে অফিস থেকে এসেই দৌড়ে চলে যাই অলিপুরের দিকে। ওখানকার কালভার্টের ওপর মেয়ের জুতা ছেঁড়া দেখতে পেয়ে আমি তো আর নেই মনে হচ্ছিল। আর্মি লোকজন, এমপিদের নিয়ে অলিপুরের জঙ্গলে ঢুকে দেখি মেয়ের লাশ…কান দিয়ে অঝোরে রক্ত পড়েছে… চুলগুলো পিছনদিক থেকে সব ছেঁড়া … মেয়েটা আমার অনেক বাঁচার চেষ্টা করেছে…।
যদিও সরকার নারী নির্যাতন প্রতিরোধে ঘৃণ্য এই কাজের সঙ্গে জড়িত নরপশুদের শাস্তি নিশ্চিত করতে কঠোর আইন করেছে। তবে ওই আইনের ফাঁকফোকরে বরাবরই তারা থাকে ধরাছোঁয়ার বাইরে। নিশ্চিত করা সম্ভব হয় না তাদের কৃতকর্মের শাস্তি। তাই উদ্বেগ হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে ধর্ষণের ঘটনা। দেশে ধর্ষণসহ নারী নির্যাতনের যে অসহনীয় পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে, এ জন্য দেশের সব নারীরা আজ শংকিত, আতঙ্কিত, শঙ্কাগ্রস্ত। কোথাও আজ নারীরা নিরাপদ নয়। এ ক্ষেত্রে থাকছে না বয়স, স্থান, কাল, পাত্রের ভেদ। রাত-বিরাতে নয় শুধু, দিনদুপুরে প্রকাশ্য যৌন নির্যাতনের ঘটনাও ঘটছে। রীতিমতো গণধর্ষণের ঘটনাও ঘটছে। মেয়েরা যখন যৌন হয়রানির শিকার হন, তখন দোষ দেয়া হয় মেয়েদের পোশাক পরিধান এবং চালচলনের। কিন্তু একটি শিশু বা একজন স্কুুল ছাত্রী তো ওইরকম পোশাক পরে না। তাহলে তারা কেন এরকম পরিস্থিতির শিকার হচ্ছে? বোরকা পরে, পর্দা মেনেও রেহাই মিলছে না মেয়েদের। তনুর পোশাক তো অসংযত ছিল না। তাহলে এ ঘটনার জন্য কাকে দায়ী করা হবে?
শুধু কিছু বিকৃত মানসিকতার পুরুষদের কারণে ধারাবাহিকভাবে বছরের পর বছর এসব ঘটনা ঘটেই চলেছে। যুদ্ধের সময় রাজাকার, আলবদররা যেভাবে নারীদের সম্ভ্রমহানি করেছিল, আমরা নতুন প্রজন্মকে সেই সব ভয়াবহ যুদ্ধের নৃশংস দৃশ্যগুলো আবার দেখাচ্ছি যখন একটি স্বাধীন সার্বভৌম গণতান্ত্রিক দেশে বাস করছি। ছিঃ ধিক্ তাদের। ২০১৬ সালে এসে ১৯৭১-এর সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখতে হচ্ছে। এ ঘটনায় আজ দেশবাসী স্তব্ধ। বলার মতো কোনো ভাষা নেই।
এই লজ্জা আমাদের। সারা বিশ্ব আজ জেনে গেছে বাংলার নারীরা আজো ক্ষমতার উচ্চপর্যায়ে গিয়েও নিরাপদ নয়। তাই তো আমরা বার বার পদদলিত হচ্ছি আর লাঞ্ছিত হচ্ছি প্রতি পদে পদে। কিন্তু এভাবে আর কতদিন? দেশের পুরো নারীসমাজ জেগে উঠুক দৃঢ় প্রত্যয়ে সাহসিকতার সঙ্গে এসব কালিমা দূর করে যাতে অন্ধকারের মধ্যে আলোর দীপশিখা জ্বালাতে পারে। এ ব্যাপারে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তদের দুর্বৃত্তায়ন বন্ধ করা যাবে সহজেই। কারণ তারা সংখ্যায় কম। প্রধানমন্ত্রীর কাছে নারীসমাজের আকুল আবেদন, এরকম ন্যক্কারজনক বর্বরোচিত ঘটনা যাতে আর না ঘটে, আর কোনো নারীকে যাতে এভাবে অকালে জীবন দিতে না হয়, সে জন্য জরুরি ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। আমরা পুরো নারীসমাজ ধিক্কার জানাই তনু হত্যার প্রতিবাদে, তনুর প্রতি এরকম নিন্দনীয় অশোভন আচরণের জন্য। এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের কঠোরতম দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি যাতে ভবিষ্যতে আর কোনো নারীকে এভাবে অকালে জীবন দিতে না হয়। কোনো নারী যাতে এভাবে নির্যাতিত হয়ে মৃত্যুর দুয়ারে না যায়। এ দেশের সব নারী সাংসদ, নারী মন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি … নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। নারীসমাজের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন।
নারীরা যাতে নির্ভয়ে নিঃসংকোচে এগিয়ে যেতে পারে। নারীদের নিরাপত্তা বিধানে প্রয়োজনীয় লোকবল নিয়োগ পূর্বক রাস্তার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে থাকবে নারীদের নিরাপত্তা প্রদানকারীরা। নারীরা যাতে নির্ভয়ে নিরাপদে চলাফেরা করতে পারে, সেরকম পরিবেশ তৈরি করা বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বড় দাবি। দেশের সব নারীদের, মেয়ে শিশুদের ঘরে-বাইরে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। আমরা চাই প্রতিটা নারী নিরাপদ থাকুক প্রতিটা জায়গায়।
লেখিকাঃ ইলা মুৎসুদ্দী, সৌজন্যে ; যায়যায়দিন


তনুর হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার এবং মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে গণজাগরণ মঞ্চের গণস্বাক্ষর কর্মসূচি চলছে

ক্রেতা ঠকাতে অভিনব প্রতারণাঃ অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন


আরো পড়ুন...

প্রখ্যাত মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির ৭ম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রখ্যাত মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির ৭ম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
বসন্তের আগমন মানেই তরুণ হৃদয়ে নতুন প্রাণের সঞ্চার আর তারুণ্যের সাহসী উচ্ছ্বাস বসন্তের আগমন মানেই তরুণ হৃদয়ে নতুন প্রাণের সঞ্চার আর তারুণ্যের সাহসী উচ্ছ্বাস
উনিশ শতকের নব জাগরণের শ্রেষ্ঠ প্রতিভা, বাঙালির প্রমিথিউস মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৫তম জন্মবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা উনিশ শতকের নব জাগরণের শ্রেষ্ঠ প্রতিভা, বাঙালির প্রমিথিউস মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৫তম জন্মবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা
আজ শুক্রবার, সপ্তাহের সকল দিনের শ্রেষ্ঠ দিন জুম্মাবার সবাইকে জুম্মা মোবারক। আজ শুক্রবার, সপ্তাহের সকল দিনের শ্রেষ্ঠ দিন জুম্মাবার সবাইকে জুম্মা মোবারক।
ইংরেজ রাজনীতিবিদ ও লেখক উইনস্টন চার্চিলের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি ইংরেজ রাজনীতিবিদ ও লেখক উইনস্টন চার্চিলের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি
সাহিত্যরত্ন মুনশী আশরাফ হোসেনের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি সাহিত্যরত্ন মুনশী আশরাফ হোসেনের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
২৪ জানুয়ারি, ‘৬৯ এর গণ-অভ্যুত্থান দিবসঃ ঐতিহাসিক এই দিনটিকে স্মরণ করছি গভীর শ্রদ্ধায় ২৪ জানুয়ারি, ‘৬৯ এর গণ-অভ্যুত্থান দিবসঃ ঐতিহাসিক এই দিনটিকে স্মরণ করছি গভীর শ্রদ্ধায়
বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের খ্যাতিমান অভিনেতা অমল বোসের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের খ্যাতিমান অভিনেতা অমল বোসের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
উনিশ শতকে বাংলা সাহিত্যের উল্লেখযোগ্য কবি নবীনচন্দ্র সেন এর ১১০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি উনিশ শতকে বাংলা সাহিত্যের উল্লেখযোগ্য কবি নবীনচন্দ্র সেন এর ১১০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
খ্যাতিমান স্পেনীয় পরাবাস্তববাদী চিত্রকর সালভাদর দালির ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি খ্যাতিমান স্পেনীয় পরাবাস্তববাদী চিত্রকর সালভাদর দালির ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
প্রখ্যাত মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির ৭ম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
বসন্তের আগমন মানেই তরুণ হৃদয়ে নতুন প্রাণের সঞ্চার আর তারুণ্যের সাহসী উচ্ছ্বাস
উনিশ শতকের নব জাগরণের শ্রেষ্ঠ প্রতিভা, বাঙালির প্রমিথিউস মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৫তম জন্মবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা
আজ শুক্রবার, সপ্তাহের সকল দিনের শ্রেষ্ঠ দিন জুম্মাবার সবাইকে জুম্মা মোবারক।
ইংরেজ রাজনীতিবিদ ও লেখক উইনস্টন চার্চিলের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি
সাহিত্যরত্ন মুনশী আশরাফ হোসেনের ৫৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
২৪ জানুয়ারি, ‘৬৯ এর গণ-অভ্যুত্থান দিবসঃ ঐতিহাসিক এই দিনটিকে স্মরণ করছি গভীর শ্রদ্ধায়
বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের খ্যাতিমান অভিনেতা অমল বোসের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
উনিশ শতকে বাংলা সাহিত্যের উল্লেখযোগ্য কবি নবীনচন্দ্র সেন এর ১১০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি
খ্যাতিমান স্পেনীয় পরাবাস্তববাদী চিত্রকর সালভাদর দালির ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি